মেডিকেল টেস্ট রিপোর্ট এখন থেকে অনলাইনে

রোগী এবং তাদের পরিবারদের টেস্ট রিপোর্ট নেবার জন্য আর মেডিকেল কলেজের বাইরে দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করতে হবেনা। এখন থেকে নিজেদের মোবাইল থেকেই যাতে বিভিন্ন রকম টেস্ট রিপোর্ট দেখতে পাওয়া যায়, তার ব্যবস্থা করতে চলেছে রাজ্য সরকারি মেডিকেল কলেজগুলো

               যাদের কাছে স্মার্ট ফোন নেই, এমন রোগী বা তাদের আত্মীয়দের জন্য হাসপাতালের তরফে আলাদা কিয়স্ক গড়ে তোলা হবে, যেখান থেকে তারা রিপোর্ট দেখে নিতে পারবেন। ল্যাব টেস্ট রিপোর্টের জন্য স্বাস্থ্য দফতর অনলাইন সিস্টেম আনতে চলেছেকলকাতার পাঁচটি মেডিকেল কলেজেই আউটডোর পেশেন্টদের জন্য কম্পিউটারাইজড পদ্ধতিতে কাজকর্ম করার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। কিছু ক্ষেত্রে যে সব রোগীদের ভর্তি নেওয়া হচ্ছে, তাদের জন্যও এই কম্পিউটারাইজড সিস্টেমে কাজ হবে। এই কার্যপদ্ধতি সুষ্ঠুভাবে চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে  রাজ্যের সরকারি হাসপাতালগুলোতেও এই ব্যবস্থা জারি করার পরিকল্পনা রয়েছে। তবে কিছু কনফিডেন্সিয়াল টেস্ট রিপোর্ট যেমন- এইচআইভি /এইডস প্রভৃতি অনলাইনে উপলব্ধ হবেনা

              স্বাস্থ্য দফতরের একটি ওয়েবসাইট তথা 'অনলাইন টেস্ট রিপোর্ট' সেকশনে ক্লিক করে নিজের বা রোগীর ডিটেইল দিয়ে দিলেই রিপোর্ট দেখা যাবে। স্বাস্থ্য দফতরের ডিরেক্টর অজয় চক্রবর্তী জানান, শুরুতে কিছু ত্রুটি দেখা দিচ্ছে, কিন্তু অচিরেই সেটা সামলানো যাবে এবং তারপর অন্যান্য হাসপাতালে এভাবেই টেস্ট রিপোর্ট দেখার বা জানানোর ব্যবস্থা করা হবে। যখন রিপোর্ট নেবার জন্য স্মার্ট ফোনের নম্বর চাওয়া হবে, সেই সময় যদি রোগীর বা তার আত্মীয়ের স্মার্ট ফোন না থাকে, তাহলে তাদের পরিচিত কারো স্মার্ট ফোনের নাম্বার দিয়েও রেজিস্ট্রেশন করানো যাবে। সেক্ষেত্রে রিপোর্ট জানার জন্য ওই তৃতীয় ব্যক্তির ফোন থেকে তা জানা যাবে। কেউ চাইলে হাসপাতালের সেন্ট্রাল ল্যাব থেকেও রিপোর্ট সংগ্রহ করতে পারেন। মেডিকেল কলেজগুলিতে কম্পিউটার ইক্যুইপড কিয়স্ক-এর ব্যবস্থা করা হবে, যাতে রিপোর্ট নেওয়ার সময় কোনও অসুবিধা না হয়। সেখানে গিয়ে রোগীর নাম এবং রেজিস্ট্রেশন নাম্বার জানালেই রিপোর্ট পাওয়া যাবে। যখন দিনের শেষে সেন্ট্রাল ল্যাব বন্ধ হয়ে যাবে, তখনও কিয়স্ক খোলা থাকবে রোগীদের পরিষেবা দেওয়ার জন্য। এমনকি রাতেও কিয়স্ক থেকে রিপোর্ট নেওয়া যাবে বলে জানালেন মেডিকেল কলেজ হসপিটালের মেডিকেল সুপারিন্টেন্ডেন্ট এবং ভাইস প্রিন্সিপ্যাল ইন্দ্রনীল বিশ্বাস

             কলকাতা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ এবং হাসপাতালে ভর্তি হওয়া বিশেষ কিছু রোগী তথা বিশেষ কিছু ওয়ার্ডে ভর্তি হওয়া রোগীর ক্ষেত্রে টেস্ট রিপোর্ট সরাসরি অনলাইনের মাধ্যমে নার্সিং স্টেশনে পাঠানো শুরু হয়েছে বলে জানালেন কলেজের মেডিকেল সুপারিন্টেন্ডেন্ট তথা ভাইস প্রিন্সিপ্যাল সন্দীপ ঘোষ। অপরদিকে এনআরএস কেবলমাত্র আউটডোর পেশেন্টদের জন্যই অনলাইন ফেসিলিটি চালু করেছে। আউটডোরে সিস্টেম মসৃণভাবে চালু হলে তারপর তা ইনডোর বা ভর্তি হওয়া রোগীদের জন্য চালু করা হবে বলে জানালেন কলেজের মেডিকেল সুপারিন্টেন্ডেন্ট তথা ভাইস প্রিন্সিপ্যাল সৌরভ চট্টোপাধ্যায়।

 

 

 

You can share this post!

...

Loading...