কারিপাতাকে বন্ধু বানান

অনেকেই বড়ির ‘কিচেন গার্ডেন’ - এ শখে কারিপাতার গাছ করেন। অনেকেই আবার দক্ষিনী খাবারের প্রেমে পড়েন কারিপাতার গন্ধে। দক্ষিণী খাবারের ‘সিগনেচার’ কারিপাতা। গন্ধ তো বটেই, কিন্তু জানেন কি কারিপাতার গুণ তার সুবাসের চেয়েও বেশি মহার্ঘ্য। সারা দিনের খাবারে কয়েকটামাত্র কারিপাতার ব্যবহার বদলে দিতে পারে আপনার গোটা ‘হেলথরিপোর্ট চার্ট’টাই।
সকালে চায়ের কাপে ছোট সবুজ কয়েকটা পাতা। চুলের ঘনত্ব তো বাড়াবেই সঙ্গে চুল সাদা হয়ে যাওয়ার সমস্যাতেও কাজ দেয়। চায়ে ফুটিয়ে যেতে না খেতে পারেন তাহলে সকালবেলা জল দিয়ে চিবিয়ে খেলেও একই উপকার পাবেন।
ডায়েরিয়ার সমস্যায় ‘বাটারমিল্ক’ উপকারি। তার সঙ্গে মিশিয়ে নিন কারিপাতা বাটা।
রোজ খাবারের সঙ্গে কারিপাতার চাটনি ডায়াবেটিসে যোদ্ধার কাজ করে।
ভিটামিন- এ, ভিটামিন-বি, অ্যামাইনো অ্যাসিডে ভরপুর কারিপাতা সারাবছরই প্রায় পাওয়া যায়।
ভিটামিন এ থাকার কারণে চোখের রোগ, রাতকানা অসুখ প্রতিরোধ করে।
ত্বক ভালো রাখে। এমনি ত্বক আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ হলে বা কাটাছেঁড়ার ক্ষত থাকলেও কারিপাতা ঔষধীর কাজ করে।
পূর্ব ভারতের তুলনায় পশ্চিম এবং দক্ষিণ ভারতে বেশি। পাকিস্তান, বাংলাদেশ, বার্মা, ফিজি, মালয়েশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইউরোপ, আমেরিকাতেও জন্মায়।

You can share this post!

...

Loading...